করোনা ভাইরাস ও আমাদের অজ্ঞতা

করোনা নিয়ে আমরা বক বক করতে করতে আমরা শেষ ! তাঁর মধ্যে অধিকাংশই না জেনে আমি এমন অনেক মেসেজ পেয়েছি যা দেখে ঐ মানুষকে আমার বেক্কল মনে হয়েছে আর কিছু নয়। আর এই সময় আমি ভাবছি ছোট বেলা হাই স্কুলে টয়লেট লাগলে সমাধান ছিল কোন বন্ধুর বাড়ি বা আশে পাশে যে এলাকা আছে কারো বাড়ি গিয়ে সেরে আসো ! এই ছাড়া কোন অপশন চিন্তাই করা যেত না 😞 কারন যে টয়লেট ছিল সেটা বছরের ৩৬৫ দিন একই রকম থাকতো 🙁 আর প্রাইমারী স্কুলে তো টয়লেটই ছিল না -_- ওইটা করোনা থেকেই ভয়াবহ ছিল যা আমাদের ক্ষতি হয় নাই বলা যাবে না…গভীর ভাবে ভাবতে হবে, এখনও আমাদের ছোট ভাই ও বোনরা একই পরিস্থিতির শিকার হচ্ছেন বা হচ্ছে (সেখানে এলার্ট হউন)

বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স এর বলাকা অফিস এর টয়লেট হায় রে আমার যাতে আর না যেতে হয়, কিছু দিন আগে বুয়েট এর টয়লেট ১ নম্বর সারতে গিয়ে চলে এসেছি, জনতা ব্যাংক এর টয়লেট এর অবস্থাও ভয়াবহ খারাপ মানে ৩০-৪০ জন একটি বাথ রুম ব্যবহার করে যেখানে হাওয়া বাতাশ বের হওয়ার জায়গা নাই পাশেই নামাজের জায়গা গন্ধে অবস্থা খুব খারাপ। পিজি’র টয়লেট গুলোর অবস্থাও খারাপ, সরকারী কলেজ গুলোর কথা আর নাই বললাম, এখন পর্যন্ত ৩৫-৩৭ জেলা ঘুরার সুযোগ হয়েছে বিশেষ করে হাই ওয়ে টয়লেট যে একবার যাবে আর জীবনেও যাবে না। সরকারী হাসপাতাল গুলো “ঢাকা মেডিকেল কলেজ, হৃদরোগ ইন্সটিটিউট, শিশু হাসপাতাল, পঙ্গু হাসপাতাল, শহীদ সৌরাদ্দি সহ ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন এমনকি বারডেম সহ ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ সহ চাইল্ড ফাউন্ডেশন আরও অন্য গুলোর কথা আর নাই বললাম বিশেষ করে স্পেশাল কেয়ার ইউনিট গুলো ছাড়া। হাই কমেড মানে হচ্ছে ফ্ল্যাশ কাজ করবে না ১০০% গ্যারান্টি…

যে মাস্ক নিয়ে আহামরি এই মাস্ক ২ টাকার বা ৫ টাকার মাস্ক এখন মূল্য নাকি ৩০/৫০/১০০/২০০ নাকে দিয়েও এই সব টয়লেট থেকে রক্ষা নাই…কেও একজন বলেছিল “কারো যদি রুচি বুঝতে চাও তাঁর বাসার টয়লেট এ ডু মারবা”…কিন্তু তাহলে এই প্রতিষ্ঠান গুলোর…কে দেখবে এই সব, কাকে বলবেন, কেও নাই নাই…এখন করোনা নিয়া সব পাগলামি শুরু করছেন তবে হ্যাঁ দরকার ছিল, আল্লাহ্‌ চাইলে সব কিছু করতে পারেন! ছোট ছোট বিষয় গুলো আমরা পাত্তা দেই নাই দেখেই আল্লাহ্‌ তা আলা একটা নাড়া দিয়ে দিয়েছেন তবে দুঃখের বিষয় হলেও সত্যি আমাদের দেশ এখন ঘুমিয়ে আছে 😞 একবার ভেবে দেখুন দৈনিক কত গুলো মানুষ “শিশু থেকে বৃদ্ধ” কস্ট করছেন এই টয়লেট গুলোতে…মন থেকেও তো একটা কস্ট পেয়ে থাকেন…

একদল ব্যবসায়ী ইচ্ছামত ব্যবসা করতেছে এই সুযোগে, আরেক দল গবেষক হয়ে গেছে, আরেকদল করোনার উপর পিএইচডি নিয়ে নিছে, আরেকদল নোবেল এর জন্য এপ্লাই শুরু করেছে, ছাগলের দল…নিজের সচেতনার খবর নাই আছে আজাইরা প্যাঁচাল নিয়া…ইনবক্সে কেও করোনা বিষয়ক আজাইরা বিষয় নিয়া নক দিবে বা বার্তা দিবেন সাথে সাথে ব্লক…কোন কথা হবে না…অস্থির করে ফেলতেছেন পরিবেশ, কেও একবারও ডিপ্লি পরিস্থিতি নিয়ে ভেবেও দেখছেন না…ছবিতে দেখুন পৃথিবী থেমে গেছে…আপনার প্যাঁচাল থামছে না (না জেনে প্যাঁচাল) এই পৃথিবী থামার কারন আমরাই, আমরা ভুলে গেছি আমরা দিন শেষে আমরা জানোয়ার নয়, আমরা নিজেদের দায়িত্ব ও কর্তব্য ভুলে গেছি, আমরা ভুলে গেছি জীবন আসলেই ছোট…আমরা এটাও ভুলে গেছি আমরা গরু ছাগল নয় আমরা মানুষ…আপনি অবাক হবেন শুনে একদল চায়ের দোকানে হাহাহাহা হুহুহুহু করতেছেন করোনা নামক বিষয় নিয়ে…মানে আমরা জানোয়ার হয়ে গেছি এটাই প্রমাণ। আল্লাহ্‌ রক্ষা করুক সবাইকে…পৃথিবীর সকল মানবকে…আমকে ২-৩ বলছে কিছু কম দামে মাস্ক কিনে Bazarno1 এ সেল শুরু কর চওড়া দামে, চিন্তা করে দেখলাম আমাকে বুদ্ধি দেয় নাই, ধ্বংস হওয়ার পরামর্শ দিছে।

লেখক ও গবেষক – প্রকৌশলী আছিব চৌধুরী

“Love yourself & you will get a way how to live” – Asive Chowdhury

# মেডিসিন থেকে দূরে থাকুন – নিয়মিত শরীর চর্চা করুন এবং সুস্থ্য থাকুন #

আপনার যে কোন মূল্যবান মতামত ও পরামর্শ দিতে পারেন। পরবর্তীতে কি বিষয় নিয়ে লেখা চান সেটিও জানাতে পারেন ইমেইলের

Asive Chowdhury | Facebook | Twitter | LinkedIn | Google Site | Google Local Guides | Google Plus | YouTube

Google Site | Wikipedia | Instagram | Asive’s Blog

Email: asive.me@gmail.com, Web: www.asive.me